Flash news
    No Flash News Today..!!
Monday, May 27, 2024

শুধু মানুষ নয়, এডিস ইজিপ্টাই মশার কামড় থেকে পশুপাখির মধ্যেও ডেঙ্গি ছড়ায়

banner

#Pravati Sangbad Digital Desk:

ডেঙ্গি বা প্রচলিত ভাষায় ডেঙ্গু ভাইরাসের বাহক হল এডিস ইজিপ্টাই জাতের মশা। ভাইরাসবাহী মশার কামড়ে ডেঙ্গির জীবাণু একজনের শরীর থেকে অন্যজনের শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। তবে এই মশা কখন কামড়ায় এ নিয়ে অনেকেরই নানা মত আছে। 

এতদিন একটি ধারণা প্রচলিত ছিল এই মশাটি মূলত দিনের বেলা কামড়ায়। সচেতনতামূলক বিভিন্ন প্রচার প্রচারণায়ও দিনের বেলা মশারির ভেতরে থাকতে অথবা ফুলহাতা কাপড় পড়ে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

কিন্তু সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, এই মশাটি শুধু দিনে নয় বরং রাতেও কামড়ায়। এর অর্থ মশাটির আচরণে পরিবর্তন ঘটেছে। যা জনস্বাস্থ্যের জন্য আশঙ্কার কারণ হয়ে উঠতে পারে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

তবে রাতের বেলায় কামড়ানোর হার কিছুটা কম থাকে। 

ডেঙ্গি মশাবাহিত রোগ। এডিস ইজিপ্টাই নামে এক বিশেষ প্রজাতির মশা এই রোগের বাহক। গ্রীষ্মমন্ডলীয় অঞ্চলে সারা বছরই এই মশা দেখতে পাওয়া যায়। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন অংশের মতো, পশ্চিমবঙ্গেও ক্রমে ভয়াবহ আকার নিচ্ছে ডেঙ্গি।

পুরনো টায়ার, লন্ড্রি ট্যাংক, ঢাকনাবিহীন চৌবাচ্চা, ড্রাম বা ব্যারেল, অন্যান্য জলাধার, পোষা প্রাণীর পাত্র, নির্মাণাধীন ভবনের ব্লক, ফেলে রাখা বোতল ও টিনের ক্যান, গাছের ফোকর ও বাঁশ, দেয়ালে ঝুলে থাকা বোতল, পুরনো জুতা, ফুলের টব, পরিত্যক্ত খেলনা, ছাদ, অঙ্কুরোদগম উদ্ভিদ, বাগান পরিচর্যার জিনিসপত্র, ইটের গর্ত ও অপরিচ্ছন্ন সুইমিং পুলে এডিস মশা জন্ম নেয়। 

এডিস ইজিপ্টি মশা, অর্থাৎ ডেঙ্গির মশা হয় গাঢ় রঙের। পায়ে থাকে সাদা সাদা দাগ। বুকে বীণার তারের মতো দাগ থাকে। সাধারণ মশার থেকে আকারে ছোট হয় এডিস ইজিপ্টাই। দৈর্ঘ্য মাত্র ৪ থেকে ৭ মিলিমিটার। স্ত্রী মশারা পুরুষদের তুলনায় লম্বা হয়। এই মশা সাধারণত জমা জলে বা তার কাছাকাছি ডিম পাড়ে। ডিম থেকে সদ্য বের হওয়া লার্ভা, শেত্তলা, ছোট জলজ জীব, উদ্ভিদের কণা খেয়ে বেঁচে থাকে। শীতকালে এডিস ইজিপ্টাই মশা বাঁচে না। শুধুমাত্র গ্রীষ্ম বা বর্ষায় এই মশা ডিম পাড়ে।


এডিস মশা খুব অল্প জলে (৫ মিলি বা ১ চা চামচ জলে) ডিম পাড়ে যা জল ছাড়াও প্রতিকূল পরিবেশেও টিকে থাকতে পারে। এই জন্যই লার্ভা ধ্বংসে টেমিফস ১ গ্রাম/১০ লিটার জলে খুব কার্যকরী, যা ব্যবহার পরিবেশ ও মানব স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর নয়। নির্মাণাধীন ভবনের প্রজননস্থল ধ্বংস করে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত রোগের প্রাদুর্ভাব কমানো সম্ভব।

শুধু মানুষ নয়, এডিস ইজিপ্টাই মশার কামড় থেকে পশুপাখির মধ্যেও ডেঙ্গি ছড়াতে পারে।

ডেঙ্গির মশা বেশিরভাগই দিনের বেলায় কামড়ায়। দিনের বেলায় এই মশা সবথেকে বেশি সক্রিয় থাকে। সূর্যোদয়ের প্রায় দুই ঘণ্টা পরের সময় এবং সূর্যাস্তের কয়েক ঘণ্টা আগের সময়ই এই মশার কামড়ের সম্ভাবনা সবথেকে বেশি থাকে। শুধুমাত্র স্ত্রী মশারাই রক্ত খায়।

এডিস ইজিপ্টাই মশা সাধারণত শীতল, ছায়াময় স্থানে বিশ্রাম নেয়। বাড়ির ভিতর, আলমারি এবং বিছানার নীচে এদের থাকার সম্ভাবনা বেশি। সাধারণত দিনের বেলায় কামড়ালেও, রাতেও কিন্তু এই মশা কামড়াতে পারে। সাধারণত গোড়ালি এবং কনুইয়ের মতো এলাকাগুলিতে কামড়ায় এডিস ইজিপ্টাই।

প্রথম কাজ হল, বাড়ির ভিতরে বা আপনার আশেপাশের এলাকায় কোন প্রকার জল না জমতে দেওয়া

গাছের গায়ে কোটর থাকলে, তাও মাটি বা বালি দিয়ে ভরাট করে দেওয়া উচিত

পুরো হাতা এবং হালকা রঙের পোশাক পরুন

ঘরের দরজা-জানালা যথাসম্ভব বন্ধ রাখুন, নিয়মিত মশারি ব্যবহার করুন l 

#Source: online/Digital/Social Media News # Representative Image

Journalist Name : প্রিয়শ্রী

Related News