Flash news
    No Flash News Today..!!
Monday, May 27, 2024

ক্রিজ পেরিয়ে জীবনে হাফ সেঞ্চুরি বিস্ময় বালক শচীনের

banner

#Pravati Sangbad digital Desk:

তখন দেশের জনসংখ্যা ছিল ৮৫ কোটি। ৮৯ সালে ১৬ বছরের সচিন তেন্ডুলকর মাঠে নেমেছিল ভারতীয় দলের হয়ে খেলতে, ২০১৩ সালে সচিন যখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেন, তখন দেশের জনসংখ্যা ১২৯ কোটি পেরিয়ে গিয়েছে। ২৪ বছর ধরে দেশের হয়ে খেলেছেন মাস্টার ব্লাস্টার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁর রান সংখ্যা যেমন বেড়েছে, তেমনই পাল্লা দিয়েছে বেড়েছে প্রত্যাশার চাপ।

       ক্রিকেটের বিস্ময় বালক' ক্রিজে নেমে যদিও আর ব্যাট করেন না। কিন্তু তিনি যে আজও খেলা অন্ত প্রাণ সেটা টিম ইন্ডিয়ার ক্রাইসিস পিরিয়ডে কিংবা মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বড় রান তাড়া করার সময় 'তাঁর' এক্সপ্রেশনেই বোঝা যায়। 

   প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় হয়েছে মাঠ ছেড়েছেন তিনি। কিন্তু তাঁর জনপ্রিয়তা কমেনি এতটুকু। ক্রিকেটের ভগবান সচিন রমেশ তেন্ডুলকর (Sachin Ramesh Tendulkar) আজ সোমবার অর্থাত্‍ ২৪ এপ্রিল জীবনের হাফ সেঞ্চুরি করে ফেললেন। 


টিম ইন্ডিয়ার জার্সিতে ২০১৩ সালের নভেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ়ের বিরুদ্ধে ওয়াংখেড়েতে শেষ টেস্ট খেলেছিলেন । সেদিন মাঠ ছেড়ে বেরোবার সময় শ্রদ্ধায় মাথা নিচু করে পিচ প্রণাম করেছিলেন সচিন। তাঁর ফ্যানদের কাছে সেদিনের স্মৃতি এখনও টাটকা। ওয়াসিম আক্রম (Wasim Akram), ওয়াকার ইউনিস, ইমরান খানের মোকাবেলা করতে শুরু করেছিলেন মাত্র ১৬ বছর বয়স থেকে। মুরলিধরন কিংবা শেন ওয়ার্ন সচিনকে বল করতে গেলে রীতিমতো ভাবতে হতো বিশ্বের বাঘা বাঘা বোলারদের। মাঝে অত্যন্ত শান্ত এবং নম্র স্বভাবের এই ভারতীয় ক্রিকেটার আজীবন খেলার প্রতি তাঁর আনুগত্য প্রকাশ করেছেন। আজও নীল জার্সির খেলোয়াড়রা ম্যাচ হেরে গেলে মাস্টার ব্লাস্টারের চোখের কোণে জল আসে। ৯৯.৫ শতাংশ নিখুঁত এক ব্যাটার বলেছিলেন ভিভিয়ান রিচার্ডস। আধুনিক ক্রিকেটের নয়া ডন ব্র্যাডম্যান ছিলেন তিনি। তাঁর শতরানের সেঞ্চুরি দেখতে চেয়েছিলেন আপামর ভারতবাসী। নিরাশ করেননি ক্রিকেট দেবতা। ভারতে ক্রিকেট ধর্ম হলে, সচিন ঈশ্বর এ কথা স্বীকার করেছে গোটা বিশ্ব।

     আজহার হোক বা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Saurav Ganguly), মহেন্দ্র সিং ধোনি কিংবা বিরাট কোহলি - প্রতি প্রজন্মের সঙ্গে নিজেকে মিলিয়ে নিয়ে ব্যক্তিগত বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে ক্রিকেট শাসন করেছেন এই পঞ্চাশ বছরে পা দেওয়া ক্রিকেটের 'বিস্ময় বালক'। ২৪ এপ্রিল, ১৯৭৩, এই তারিখটা কোনদিনই ভুলতে পারবে না গোটা বিশ্ব। সবুজ ঘাসে ১০০ সেঞ্চুরি, ২০০ টেস্টের পর জীবনের আকাশে ৫০ তম বসন্তে সচিন রমেশ তেন্ডুলকর (Sachin Tendulkar)।

#Source: online/Digital/Social Media News # Representative Image

Journalist Name : Ashapurna Das Adhikary

Related News