Flash news
    No Flash News Today..!!
Sunday, July 21, 2024

৫৩ বছর পর রথযাত্রায় বিরলঃ এবার ২ দিন চলবে পুরীর রথ

banner

#Pravati Sangbad Digital Desk:

৫৩ বছর পর রথযাত্রায় বিরল কাকতালীয় ঘটনা, এবার ২ দিন চলবে পুরীর রথ

ভারতের ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গে মূলত রথযাত্রা উৎসব বিশেষ উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পালন করা হয়।

বিশেষ তিথিতে (আষাঢ় মাসের শুক্ল পক্ষের দ্বিতীয় দিনে) ধুমধাম করে রথযাত্রার উৎসব পালিত হয় পুরী, মাহেশ, ইস্কনের মন্দিরে।

যে সমস্ত মন্দিরে ও বনেদি বাড়িতে জগন্নাথ দেব আছে, সেখানেও ঘটা করে পালন করা হয় এই উৎসব।


 দেশ বিদেশ থেকে এই রথযাত্রা দেখতে পুরীতে ভিড় জমিয়েছেন মানুষ ৷ বোন সুভদ্রাকে নিয়ে ভগবান জগন্নাথ, ভগবান বলভদ্র জগন্নাথ মন্দির থেকে তিনটি বিশাল রথে চড়ে যাত্রা শুরু করে পৌঁছবেন গুন্ডিচা মন্দিরে ৷

এবছরের পুরীর রথযাত্রা খুব বিশেষ হতে চলেছে। কারণ দু'দিন ধরে পালিত হবে রথযাত্রা উৎসব। ৫৩ বছর পর বিরল কাকতালীয় ঘটনা ঘটতে চলেছে রথযাত্রায় দিন। এবার সকালের পরিবর্তে সন্ধ্যায় শুরু হবে রথযাত্রা উৎসব। রথযাত্রার পর রথ চালানো আর হয় না। সেক্ষেত্রে পরের দিন, অর্থাৎ ৮ জুলাই ভোর থেকে আবার যাত্রা শুরু হবে।

ধর্মীয় রীতি অনুসারে, স্নানযাত্রার পর জ্বর আসে প্রভু জগন্নাথ ও তাঁর ভাই- বোনের। সেই সময় আলাদা ঘরে রাখা হয় তাঁদের। অসুস্থতা থেকে সেরে ওঠার পর, বিগ্রহে রূপটানের অনুষ্ঠান নেত্র উৎসব ও নব যৌবন উৎসব পালিত হয়। মন্দিরেই এই উৎসব পালন করা হয়। তবে এবার তিথির ফেরে নেত্র উৎসব, নব যৌবন উৎসব, রথযাত্রা একই দিনে পড়েছে। সব রীতি পালন করার পর রথযাত্রা শুরু হবে। রথের দড়িতে টান পড়তে বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা হয়ে যাবে বলে মনে করছেন জগন্নাথদেবের সেবায়েতরা।


অন্ধকার নেমে এলে, রথ কিছুটা এগিয়ে রাস্তাতেই অপেক্ষা করবে সারা রাত এবং পরের দিন, ফের যাত্রা শুরু হবে। এর আগে ১৯০৯ এবং ১৯৭১ সালে এই তিথি একই দিনে হয়েছিল বলে জানা যাচ্ছে। জগন্নাথ মন্দির থেকে মাসির বাড়ি গুন্ডিচা মন্দিরের  দূরত্ব প্রায় তিন কিলোমিটার। 

এই রথযাত্রার ইতিহাস কয়েকশো বছরের পুরনো ৷ হিন্দু পুরাণ অনুসারে ভগবান বিষ্ণুর অবতার ভগবান জগন্নাথ ৷ প্রতি বছর তিনি তাঁর বাসস্থান জগন্নাথ মন্দির থেকে মাসির বাড়ি গুন্ডিচা মন্দিরে যান ৷ এর আধ্যাত্মিক গুরুত্ব অপরিসীম বলেই মনে করা হয় ৷ উৎসবের প্রস্তুতি শুরু হয় কয়েক মাস আগে থাকতে ৷ কয়েকশো দক্ষ শিল্পী ভগবান জগন্নাথের জন্য কাঠের রথ তৈরি করেন ৷

জগন্নাথের সংস্কৃতি নিয়ে গবেষণা করেন ভাস্কর মিশ্র ৷ তিনি বলেন, "প্রতি বছর হিন্দু ক্যালেন্ডারের আষাঢ় মাসের শুক্ল পক্ষের দ্বিতীয় দিনে জগন্নাথ মন্দিরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উৎসবটি হয় ৷ তিনজন দেবতা ৯ দিনের জন্য ৩ কিমি দূরে তাঁদের জন্মস্থান, গুন্ডিচা মন্দিরে যান ৷"


স্নান যাত্রায় চিরাচরিত রীতি অনুযায়ী ভগবান জগন্নাথ, ভগবান বলভদ্র এবং দেবী সুভদ্রাকে ১০৮টি কলসি ভর্তি সুগন্ধী জলে স্নান করানোর পর তাঁরা অসুস্থ হয়ে পড়েন ৷ এরপর ১৫ দিন অন্তরালে থাকেন দুই দেবতা এবং তাঁদের বোন দেবী সুভদ্রা ৷ এই সময় মন্দিরে তাঁদের দর্শন বন্ধ থাকে ৷ শুধুমাত্র যাঁরা সেবা করেন, তাঁদের বিশেষ একটা দলই দেব-দেবীদের উদ্দেশ্যে কিছু গোপন আচার, রীতি পালন করেন ৷ এরপর রথযাত্রার আগের দিন ফের দেবতাদের দর্শন পাওয়া যায় ৷ একে নব যৌবন দর্শন বলে ৷ তবে এবছর নব যৌবন দর্শন এবং রথযাত্রা একই দিনে পড়েছে ৷ ৭ ও ৮ জুলাই- দু'দিন ধরে রথযাত্রা পালিত হবে ওড়িশায় ৷

#Source: online/Digital/Social Media News # Representative Image

Journalist Name : প্রিয়শ্রী